মিশরের পেঁয়াজ গোড়ায় না,ডগায় ধরে।

0

মিশরের পেঁয়াজ গাছের গোড়ায় নয়, আগায় ধরে।

মিশরের পেঁয়াজ গাছের গোড়ায় নয়, ডগায় ধরে।

নিজস্ব প্রতিবেদক :যমুনানিউজ৭১
বাংলাদেশে পেঁয়াজের সংকট মনে করিয়ে দিলো ১১৭৬ সালের দূর্ভিক্ষের কথা।কয়েক সপ্তাহের ব্যাবধানে প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম বেরে চার গুন হলো।সেপ্টেম্বর মাসে ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিলে শুরু হয় তান্ডব।কেজিতে প্রায় ২৫০-২৭০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হতো।

এদিকে ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ায় বিকল্প উপায়ে পেঁয়াজ আমদানি করতে হয় বাংলাদেশ সরকারকে।প্রাথমিক অবস্থায় মিশর থেকে কার্গো বিমানে দেশে প্রথম পেঁয়াজের চালান আসে।

মিশরের পেঁয়াজ নিয়ে গবেষণা ও খোঁজ খবর নিতে গিয়ে বেরিয়ে এলো পেঁয়াজ উৎপাদনের মজার দৃশ্য।প্রায় সকল দেশে পেঁয়াজ গাছের গোড়ায় ধরলেও মিশরের পেঁয়াজ ধরে গাছের ডগায়।বিষয়টা যেন সকলকে চমৎকৃত করলো।

এ ধরনের পেঁয়াজকে “ট্রি অনিয়ন ” বলে।ইজিপশিয়ান ট্রি অনিয়ন,টপ অনিয়ন, উইন্টার অনিয়ন,ইত্যাদি নামে ডাকা হয়।বৈজ্ঞানিক নাম “আলিয়ুম প্রলিফারাম”।
সাধারণ পেঁয়াজের মতো গাছ হয় “টপ অনিয়ন” এর।গাছ ধিরে ধিরে বড় হয়।ফুল হয়। এরপর ফুল ধিরে ধিরে পরিপক্ব হয় যা পেঁয়াজে রুপান্তর হয়।কিন্তু সাধারন পেঁয়াজ গাছ হয়। ফুল হয়। গাছের গোড়ায় পেঁয়াজ ধরে।তা মিশরের পেঁয়াজ থেকে আলাদা।